পর্ন দেখতে খুবই ভালো লাগলেও, পর্নস্টারদের জীবন মোটেও ভালো নয়!!! জানলে আপনারও কষ্ট হবে

অনেক লোকের পর্ন স্টার দের সম্পর্কে জানতে অনেক আগ্রহী। মানুষ জানতে চায় কিভাবে পর্ন স্টার দের জীবন এবং কিভাবে তাদের জীবনধারা হয়। পর্ন স্টার তারা এবং তাদের কাজ সংস্কৃতি জীবন বেশ ভিন্ন। যদিও পর্ন স্টার দেখতে সহজ মনে হয়, কিন্তু এই কাজটি সত্যিই খুব সহজ নয়। আজ, আমরা আপনাকে বলব কিভাবে একটি পর্নোতারকা পূর্ণতা সঙ্গে তার কাজ সম্পন্ন করে। উপরন্তু, আমরা আপনাকে বলবো তাদের কর্মক্ষেত্রে তার কর্মের সময় কোন কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়।

এখন লুকিয়ে চুরিয়ে পর্ণফিল্ম দেখেন না, এমন মানুষের সংখ্যা একটু কমের দিকে বলাই যায়৷ আর এই নীলছবি যেন বয়সের ধার ধারে না৷

মোহময়ীদের নগ্ন ছবি একটু হলেও সবাই দেখতে চায় ৷

তাদের ফিগার থেকে শুরু করে কাজ-কর্ম সবেতেই সবাই আকর্ষিত হয়। তবে নীলছবির নায়িকাদের বাইরে থেকে যেরকম মনে হয়, ভেতর থেকে দেখতে ছবিটা কিন্তু সম্পূর্ণ আলাদা !!

তাদের লাইফস্টাইল দেখলে বদলে যাবে আপনার ভ্রান্ত চিন্তাধারা৷ জানুন তেমনই কিছু কষ্টের কথা?

১। শুধু মহিলাই নয়, পুরুষের ক্ষেত্রেও এটি খুবই কষ্টকর কাজ৷ শট ওকে না হওয়া পর্যন্ত তাঁকেও ঘন্টার পর ঘন্টা একঘর লোকের সামনে সর্বশক্তিটুকু এনার্জি দিয়ে তৈরি করতে হয় একটি উত্তেজনাপূর্ণ নীল ছবি।

২। এই শ্যুটিং চলে ঘন্টার পর ঘন্টা, দিনের পর দিন ৷ এক দিনে অনেক সময়ই প্রচুর ভিডিও শ্যুট করা হয়ে থাকে৷

তাই পর্নস্টারদের ফ্রেশ দেখানোর জন্য চলে ওষুধ খাওয়ানো ৷

৩। এই পেশায় জীবনের ঝুঁকি সবসময় থাকে ৷ এডস্ যখন তখন হতে পারে ৷

আর যদি একেবারে প্রাথমিক স্টেজে ধরা পড়ে এই রোগের কথা, তাহলে চিকিৎসার মাধ্যমে অনেকটাই সুস্থ করে তোলা হয় এদের৷

৪। অফিসের কাজেকর্মে যেমন সাপ্তাহিক ছুটি কিম্বা ঘুরতে যাওয়ার ছুটি পাওয়া যায় কিন্তু এই পর্ণস্টারদের ছুটি পাওয়া বেশ কঠিন।

শারীরিক অসুস্থতা বা মনমেজাজ খারাপ , ইত্যাদিতেও ছবির শ্যুট করতেই হয়৷ কখনও কখনও আবার টানা সাত দিন পর্যন্ত চলে শ্যুটিং পর্ব৷

৫। সিনেমায় যেমন কাজ করার আগে অডিশন দিতে হয়, তেমন পর্ণফিল্মে কাজ করার আগেও অডিশন দিতে হয়,

তাতে সফল হলে, তবেই মিলবে কাজ ৷ আর সেই পর্ব বোধ হয় সবথেকে কঠিন৷ সঙ্গে রাখতে হয় কাজসংক্রান্ত আপনার অভিজ্ঞতা স্বরূপ একটি সিডি৷

৬। যেভাবে সিনেমায় কোনও আইটেম গান শুটের আগে অনেকসময় নায়ক নায়িকারা খাবার খান না, নিজেকে স্লিম দেখানোর জন্য।

তেমনই নীল ছবি ‘র নায়িকারাও কিন্তু শ্যুট হওয়ার আগে থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত প্রায় কিছুই খান না৷

এমন কাজের জন্য খালি পেট না থাকলে, শ্যুটিং-এর সময় শারীরিক দিক থেকেও সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে।

৭। কোটি কোটি মানুষের যৌনাকাঙ্খায় সাময়িক আনন্দ দেওয়ার জন্য সর্বদা প্রস্তুত এই নীল তারকারা৷

নীল ছবি এর চাহিদাই এই ছবির নায়ক নায়িকাদের বাধ্য করে আরও বেশি করে এই কাজ করতে৷

কিন্তু যে কাজটি একেবারেই ব্যক্তিগত একটি বিষয়।

প্রতিমুহূর্তে লজ্জাকে জয় করে, দিনে বারবার বিভিন্ন পুরুষের সঙ্গে সেই কাজটিই করে,

যদি বিশ্ববাসীকে আনন্দ দিতে হয়, তার থেকে কষ্টের কি আর কিছু হতে পারে?

তবুও কিছু দুর্ভাগ্যজনক পরিস্থিতি যেমন টাকার প্রয়োজনে, অথবা বাধ্য হয়ে,

কিংবা নিছকই কৌতুহলের বশে যারা এই পেশায় ঢুকে পড়েছেন।

তাঁরাই জানেন এর পেছনে কতটা কষ্ট লুকিয়ে থাকে!!

যারা পর্ন দেখেন তারা কখনওই জানেন না।

বাংলায় ভাইরাল ভাইরাল খবর, লেটেস্ট নিউজ, বিনোদনমূলক পোস্ট ও আন্তর্জাতিক খবর পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ- Bengali Viral News

Sanjib: