”S” দিয়ে নাম শুরু হওয়া মানুষদের জীবনে এইটা হবেই। ৫ নম্বরটা দেখলে অবাক হবেন…

নামে কি আসে যায় ? কর্মই ধর্ম এমন কথাই বলা হয়। নাম কেবল কয়েকটি অক্ষর মাত্র। নামের কোন প্রভাব জীবনে পরেনা। জন্ম সময়, স্থান এইসবেরই প্রভাব পড়ে জীবনে এমনটাই অনেকে ভাবেন। কিন্তু নামের অক্ষরের প্রভাবও জীবনে পরে। নামের শুরুর অক্ষরের ওপর অনেকটাই নির্ভর করে সেই মানুষটির চারিত্রিক বিশিষ্ট। এই ব্যাপারটি বিশ্বাস বা অবিশ্বাস করা পুরোটাই নিজের ব্যাক্তিগত ব্যাপার।

কিন্তু অনেকেই মানেন নামের শুরুর অক্ষর দিয়ে চারিত্রিক গুণাবলীর প্রকাশ ঘটে। তাহলে আসুন জেনে নিন ”S” দিয়ে যাদের নাম শুরু হয় তারা কেমন হয় ।

৯। এদের বাইরে থেকে বুঝতে পারবেন না যে এদের মনের মধ্যে কি চলছে? নিজেরা না প্রকাশ করলে কখনোই এদের বোঝা সম্ভব নয়। ১০। এরা খুব হুজুকে হয়। হঠাত যদি কোন প্ল্যান করেন তাহলে এদের নিয়ে করতে পারেন।

৮। এদের খুব একটা অতীত নিয়ে ভাবতে বা ভবিষ্যৎ নিয়ে পরিকল্পনা করে রাখতে দেখা যায়না। এরা বর্তমান নিয়ে বাঁচতে বেশি ভালোবাসে। আর বর্তমানকে সুন্দর করে তোলার ফলে ভবিষ্যৎও এদের স্বাভাবিকভাবেই সুন্দর হয়।

৭। তাদের আরও একটি বিশেষ গুন হল সহজেই মানুষকে ক্ষমা করে দেওয়া। এরা কোন ঝামেলার কথা বেশিদিন মনে রাখেনা। শত্রুতা বেশিদিন টিকিয়ে রাখেনা। ক্ষমা করে দিয়ে সব ঝামেলা মিটিয়ে নেয়।

৬। জীবনে ওঠা পড়া সবারই থাকে। কখনো না কখনো বিপদ সবার জীবনেই আসে। এরা খুব ঠাণ্ডা মাথায় বুদ্ধির সঙ্গেও সেই বপদ কাটিয়ে উঠতে পারে।

৫। অর্থের প্রতি এদের খুব লোভ। যেখানেই দেখে যে সেখান থেকে অর্থ উপার্জন হতে পারে সেখানেই ছোটে তারা। একসাথে অনেক কাজ করার ক্ষমতাও রাখে এরা।

৪। এদের দেখতে যেমনই হোক না কেন সবার কাছে এরা খুব আকর্ষণীয় হন। প্রেমের প্রতি তাদের একটা আলাদাই শ্রদ্ধা থাকে। এরা বন্ধুদের সাথে সময় কাটাতে গল্প গুজব করতে খুব ভালোবাসে।

৩। এরা হয় খুব আবেগপ্রবণ। খুব অল্পেতেই অভিমানী হয়ে পড়ে। তখন এরা একা থাকতে পছন্দ করে। এরা খুব পরিশ্রমী হয়। কোন ব্যাপারেই এরা হার মানতে জানেনা।

২। এই অক্ষর দিয়ে শুরু নামের মানুষেরা খুব সরল প্রকৃতির হয়। এরা খুব সহজে সব মানুষকে বিশ্বাস করে নেয়। ফলে এরা ঠকেও বেশি।

১। এরা খুব উদ্যোগী প্রকৃতির হয়। নতুন কিছু করতে এরা ভীষণ আগ্রহী থাকে। উদ্ভাবনীয় কোন কাজে যদি কাউকে সঙ্গে না পান তাহলে এদেরকে পাশে পাবেনই।

Sanjib: