বউ-বাচ্চা রেখে শাশুড়িকে নিয়ে পালালো জামাই! লজ্জায় ঘর বন্ধি বাবা-মেয়ে…

বিজ্ঞাপন

দু’দিন থেকে স্বামীর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছেনা। বেকায়দায় পড়ে স্ত্রী করলেন নিজের বাবাকে। কিন্তু বাবাকে ফোন করে ওই মহিলা হয়ে যান হতবাক। জানতে পারেন তাঁর মা নিখোঁজ রয়েছেন দু’দিন ধরে।

জামাই নিয়ে পালালেন শাশুড়িকে। বর্ধমানের কেতুগ্রামে ঘটেছে এই ঘটনাটি। জানা গিয়েছে, প্রসেনজিৎ হাজরা নামে ওই ছেলেটি কেতুগ্রামেরই বাসিন্দা।

দুবছর আগে ওই গ্রামেরই মেয়ে অনুরূপা বর্মনের সাথে বিয়ে হয় প্রসেনজিতের। পরিচয় মোবাইল ফোনে। প্রেম করেই দুজনের দু’জনের বিয়ে হয়। তাঁদের সন্তানও রয়েছে একটি।

অনুরূপার অভিযোগ, প্রসেনজিতের ইদানীং বেড়ে গিয়েছিল আনাগোনা শ্বশুরবাড়িতে। সেই থেকেই প্রসেনজিতের সঙ্গে শাশুড়ির গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। এমনটাই অনুরূপা সন্দেহ করছেন।

অনুরূপার দাবি, তিনি দেখতেন মাঝে মধ্যে মোবাইল ফোনে লুকিয়ে কথা হতো দু’জনের মধ্যে। আলাদা বসে তাঁর মা ও স্বামী গল্পও করতেন। কিন্তু কোনওদিন ভাবেননি অনুরূপা যে, তাঁর স্বামী ও মায়ের মধ্যে গড়ে উঠবে প্রেমের সম্পর্ক।

এই কাণ্ডের পর এলাকায় পড়ে গিয়েছে হইচই। লজ্জায় পড়ে বন্ধ হয়েছে বাবা-মেয়ের বেরোনো বাড়ি থেকে। অনুরূপার বাবা পেশায় হকার। নাম কৃষ্ণ বর্মন। তিনি জানিয়েছেন, জামাই ও শাশুড়িকে একসাথে অনেক জায়গায় দেখেছেন তাঁর কিছু বন্ধু।

ইতিমধ্যে তিনি জামাইয়ের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন পুলিশের কাছে। পুলিশ শুরু করেছে ঘটনার তদন্ত।

সূত্র: এবেলা

বিজ্ঞাপন
Rudrani:
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন