নেশার জন্য বন্ধুর কাছে টাকা চেয়ে পাননি, অবশেষে বন্ধুকে কুচি কুচি করে খুন!

নেশার জন্য বন্ধুর কাছে টাকা চেয়ে পাননি, অবশেষে বন্ধুকে কুচি কুচি করে খুন!

আরও পড়ুন: যে ৬ ধরনের পুরুষ মহিলাদের ঠকাতে পারে! এদের থেকে দুরে থাকাই ভালো! মহিলারা এটা ভালো ভাবে লক্ষ্য করুন…..

চিত্র: সংগ্রহীত

একটি সেলুনের বাথরুমের জল ঠিকভাবে পরিষ্কার হচ্ছিল না। এ জন্য ডেকে পাঠানো হয় কল মিস্ত্রীকে। কিন্তু, কলের মিস্ত্রী এসে যা দেখলেন, তাতে সকলেরই চক্ষু চড়কগাছে!

আরও পড়ুন: এই ঠান্ডায় উষ্ণতা আরও বাড়িয়ে দিল নায়িকা দর্শনার এই হট লুকগুলো! দেখে নিন ছবিতে ছবিতে:

ঘটনাটি ঘটেছে ফ্রান্সের ইসোয়ার শহরের। ওই সেলুনের ড্রেনে একাধিক মাংসপিন্ড নজরে আসে ওই কল মিস্ত্রীর। আর তার পরেই পুলিশ’কে ডাকা হয় এই ঘটনাটির তদন্ত করার জন্য। পুলিশ এসে ওই সেলুনের উপরতলায় গিয়ে দেখেন দেওয়ালময় রক্তে ভরা।

চিত্র: সংগ্রহীত

বাড়ির এদিকে ওদিকে রক্ত মাখামাখি! ফ্রিজের ভিতরে ব্রেন আর লিভার দেখতে পাওয়ার পরই পুলিশের চোখ কপালে ওঠে যায়! আর তার পরই বাড়ি মালিকের উপরেই সন্দেহ হয় পুলিশের।

আরও পড়ুন: আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত আছে তো? জেনে নিন এই সহজ উপায়ে

ইতিমধ্যেই পুলিশ শহরেরই নানা CCTV ফুটেজ খতিয়ে দেখে ওই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারও করেছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি নেশা করবেন বলে তার বন্ধুর কাছে টাকা চেয়েছিলেন। কিন্তু, তার বন্ধু তা দিতে রাজি হন নি। এর ফলে অভিযুক্ত রেগে গিয়ে তাকে খুন করেন।

চিত্র: সংগ্রহীত

ঘটনাটি ঘটে গত সপ্তাহেই। ফ্রান্সের ইসোয়ার শহরের এক সেলুনের এক গ্রাহক বাথরুমে গিয়ে দেখেন যে ড্রেন দিয়ে জল যাচ্ছে না। আর তার পরই কল মিস্ত্রি’কে ডেকে পাঠানো হয়। কল মিস্ত্রি এসে দরজা খুললেই কিছু মাংসের টুকরো দেখতে পান তিনি। ফরেন্সিক টেস্টে পর দেখা যায়, ওই মাংসপিন্ডগুলো ওই মৃত ব্যক্তিরই।

আরও পড়ুন: আসল 10 Years Challenge যা দেখে আঁতকে উঠবেন আপনি


শহরের এক CCTV এর ফুটেজে দেখা যায় যে, রক্তমাখা তিন’টে ব্যাগ ভর্তি করে এক ব্যক্তি ডাস্টবিনে ফেলছেন। আর ঠিক তার পরের দিনই ইসোয়ার ফেরার পথে তাকে গ্রেপ্তার করে স্থানীয় পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে যে, বছর ৩৬ এর ওই অভিযুক্ত আসলে মাদকাসক্ত ও বেকার ছিল।

চিত্র: সংগ্রহীত

ফ্রান্সের সেন্ট্রাল ক্লেরমোন্ট ফেরান্ড অঞ্চলের পাবলিক প্রসিকিউটার এরিক মাইলাউড জানিয়েছেন, “গত বুধবার অভিযুক্ত তার ৪৫ বছর বয়সী বন্ধু’কে খুন করার কথাও স্বীকার করেছেন।”

আরও পড়ুন: স্বামীর সাথে স্ত্রীর রক্তের গ্রুপ মিলে গেলে কি হয় জানেন? জানুন অবাক হবেন…

প্রাধানত নেশা করার জন্য বন্ধু টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় তাঁকে খুন করেছেন বলে অভিযুক্ত জানিয়েছেন পুলিশের কাছে। অভিযুক্ত ও মৃত ব্যক্তির মধ্যে কারও নামই এখন পর্যন্ত জানানো হয় নি সেখানকার পুলিশের তরফ থেকে। তবে, পুলিশ জানিয়েছে যে, ওই মৃত ব্যক্তিও মাদকাসক্ত ছিলেন। আর খুব সম্প্রতিই উত্তরাধিকার সূত্রে বিপুল অর্থও পেয়েছিলেন মৃত ওই ব্যক্তি।

চিত্র: সংগ্রহীত

আরও পড়ুন: ‘বাবা’র ঔরসে মা হলো ১২ বছরের কিশোরী। পুরোটা পড়ুন চোখ কপালে উঠে যাবে….


Jayanta Das: