এই বলিউড নায়িকাকে রাত কাটাতে হতো স্বামীর বন্ধুদের সাথে, চলতো মারধরও!

বলিউডে বন্ধু মানেই শারীরিক সম্পৰ্ক! স্বামীর বন্ধুদের সাথে, মানে কি কেবলই লাস্যের উৎসব? ক্যামেরা’র চোখ ধাঁধাঁনো আলো-আভিজাত্যের আড়ালে কিন্তু এমন অনেক কিছুই লুকিয়ে আছে, যা বাস্তবে সামনে এলে শিউরে উঠবে গোটা দেশ!

হায়দ্রাবাদ ধর্ষণকান্ড, উন্নাও ধর্ষণকান্ডের মতো মহিলাদের চুড়ান্ত কলঙ্ক’তে যখন গোটা দেশ স্তব্ধ, আর ঠিক সেই সময়ই নব্বইয়ের দশকের অন্যতম জনপ্রিয় এবং বলিউডের এক সময়ের প্রথম শ্রেণীর নায়িকা কারিশমা কাপুরের জীবনের এমন কিছু গোপন তথ্য বেরিয়ে এলো, যা জানলে একটি কথা স্বীকার করতেই হচ্ছে যে, বলিউডের নায়িকা হোক বা দিন-মজুর, মহিলারা সব জায়গাতেই সমানভাবে অত্যাচারিত!

2003 সালে বিরাট জাঁকজমক করে সঞ্জয় কাপুরের সাথে গাঁট বন্ধনে আবদ্ধ হন কারিশমা কাপুর। কিন্তু, বিয়ের কিছু দিন পর থেকেই শুরু হয় নানা সমস্যা।

আরও পড়ুন: মেয়ের সাথে শারিরিক মিলন করে তার সাথে বিয়েও করতে চেয়েছিলেন মহেশ ভাট

কারিশমা কাপুরকে নাকি রীতিমত মারধরও করতেন তাঁর স্বামী সঞ্জয় কাপুর।

মিডিয়া ও লোক-চক্ষুর সামনে আড়াল করতে সে সব কালশিটে দাগগুলি নাকি লুকিয়ে রাখতে অনেক পুরু মেক আপ করতে হতো কারিশমা কাপুরকে।

তবে, শুধু মারধরই নয়! বিয়ের পর থেকেই নাকি তাঁর স্বামীর বন্ধুদের সাথে রাত কাটানোর জন্য তাঁর স্বামী জোড় করতেন।

এমন কি হানিমুনের সময়ও তাঁর এক বন্ধু’র সাথে রাত কাটানোর জন্য কারিশমা কাপুরকে জোড় করেছিল সঞ্জয় কাপুর!

আরও পড়ুন: ‘নিজের’ সঙ্গে সম্পর্ক ভাল রাখাটাই আসল, তাই নিজেকে যত্নে রাখতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি:

এ ভাবে চলতে চলতে তাঁদের সম্পর্ক এতোটাই খারাপ হয়েছিল যে, 2016 সালেই তাঁদের ডিভোর্সও হয়ে যায়।

কারিশমা কাপুরের আইনজীবী জানিয়েছেন যে, কারিশমা গর্ভাবস্থা থাকাকালীন শারীরিক এবং মানসিকভাবে সঞ্জয় ও তাঁর পরিবার মিলে কারিশমাকে অনেক অত্যাচার করেছে।

তাঁর ছেলের বয়স যখন মাত্র ছ’মাস, তখন সে খুবই অসুস্থ ছিল।

আর সে সময়ই সঞ্জয় আমেরিকা যান, যদিও কারিশমা সে সময় অসুস্থ ছেলে’কে নিয়ে তখন যেতে পেরেছিল না।

তবে, পরে তিনি আমেরিকায় গিয়েছিলেন। সেখানেও দিনের পর দিন নাকি হোটেলে আসতেই না তাঁর স্বামী সঞ্জয় কাপুর।

আরও পড়ুন: মিড ডে মিলের রাঁধুনি থেকে একরাতেই হয়ে গেলেন কোটিপতি!

ছেলে’র অসুস্থতা নিয়েও নাকি সঞ্জয়ের কোনো মাথাব্যাথাও ছিল না।

কারিশমার প্রেগনেন্সির সময় যে কোনো ছোট্ট কারণেই সঞ্জয় নাকি তাঁর মাকে বলতেন কারিশমাকে শারীরিকভাবে আঘাত করতে।

যদিও এ অভিযোগ একেবারেই উড়িয়ে দিয়েছেন সঞ্জয় কাপুর এবং তাঁর পরিবার।

তাঁদের কথায়, “শুধুমাত্র টাকার লোভেই নাকি সঞ্জয় কাপুরকে বিয়ে করেছিলেন কারিশমা কাপুর।”

আরও পড়ুন: “গণধর্ষণ-খুন” কান্ডের অভিযুক্তেরা জেলে বসে খাচ্ছে খাঁসির মাংস আর ফ্রায়েড-রাইস!

কারিশমা কাপুরের পিতা এবং এক সময়ের বলিউডের দাপুটে অভিনেতা রণধীর কাপুর যদিও মিডিয়াকে জানিয়েছেন যে, “সঞ্জয় কাপুর খুবই নীচ ব্যক্তি। আমি কোনো দিনই চেয়েছিলাম না যে, কারিশমা ওর মতো নীচ লোককে বিয়ে করুক। বিয়ের পরও সঞ্জয়ের সাথে অন্যান্য মহিলাদের সম্পর্ক ছিল! আর আমরা কাপুর বংশধর। সারা ভারতবর্ষই জানে আমাদের সমর্থ। কাজেই সঞ্জয় কাপুরের কত টাকা আছে, তাতে আমাদের কিছুই যায় আসে না।”

তবে, আপাতত ডিভোর্স এর পরে পরিবারের সাথে নতুন জীবন শুরু করেছেন কারিশমা কাপুর। তাঁর ছোট বোন করিনা কাপুর খানও তাঁর অন্যতম সাপোর্ট রয়েছেন।

আরও পড়ুন: মুক্তি পেল শাহরুখ খানের মেয়ে সুহানার প্রথম হলিউড ছবি! ফুল ভিডিও দেখুন

কিন্তু, কারিশমার জীবনের এই ‘অন্ধকার অত্যাচার’ আরও একবার ভারতীয় সমাজে মহিলাদের অসহায়গ্রস্থ প্রমাণ করলো।

প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে। ধন্যবাদ।।

বাংলায় ভাইরাল ভাইরাল খবর, লেটেস্ট নিউজ, বিনোদনমূলক পোস্ট ও আন্তর্জাতিক খবর পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ-Bengali Viral News

Viral Desk: