‘নিজের’ সঙ্গে সম্পর্ক ভাল রাখাটাই আসল, তাই নিজেকে যত্নে রাখতে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি:

বিজ্ঞাপন

আপনার পাশে আর কেউ থাকুক বা না থাকুক, আপনার পাশে আপনি নিজেকে সব সময়ই পাবেন।

তাই, সব কিছু ছেড়ে আগে আপনি নিজের সঙ্গে আপনার নিজের সম্পর্ক টা ভাল রাখুন।

চিত্র: সংগ্রহীত


আমাদের জীবনের অনেকটা সময়ই কেটে যায় অন্যের সঙ্গে ভালো-মন্দ সম্পর্কের নিয়ে।

কখনও নানা চেষ্টা সত্বেও আমাদের সম্পর্ক ভেঙে যায় আবার কখনও অনেক চেষ্টার পর সম্পর্ক জোড়া লাগে ঠিকই, কিন্তু এই গোটা প্রক্রিয়াতে অনেকটা শক্তিক্ষয় হয়ে যায়।

আর ঠিক এই ভাবেই আস্তে আস্তে আমাদের নিজের সঙ্গে নিজের সম্পর্কটা খারাপ হয়ে ওঠে, আর বাড়তে থাকে হতাশা, অবসাদ চেপে বসে মনের মাঝে।

চিত্র: সংগ্রহীত

আরও পড়ুন: নতুন বছরে জিও দিচ্ছে আরও সস্তার অফার! এখন মাত্র ৫০ টাকায় দুর্দান্ত অফার জিও’তে:
আপনি কেমন থাকবেন, ভালো না খারাপ? এর জন্য কিন্তু অন্য কেউ নয়, সবার আগে আপনি নিজেই দায়ী।

তাই সব রকম পরিস্থিতিতেই নিজের সঙ্গে নিজের সম্পর্কটা ভালো রাখতে হয়।

দৈনিক নিজে’কে একটু যত্ন করতে হয়, যাতে শরীর ও মন দুটিই ভাল থাকে।

এ রকমই নিজে’কে ঠিক রাখার জন্য নিচে রইলো ৭ টি টিপস:
চিত্র: সংগ্রহীত

১. আমাদের দিনের শুরুটা ব্যায়াম বা এক্সারসাইজ দিয়ে হওয়া উচিত। তবে সবার জন্যই হেভি ওয়র্কআউটের কোনো দরকার নেই।

হালকা ফ্রী-হ্যান্ড, একটু জগিং বা একটু হাটাহাঁটিই অনেক। এতেও যদি আপত্তি থাকে, তাহলে সকালে উঠে, বারান্দায় বা খোলা আকাশের নিচে একটু সময় কাটান।

দেখবেন, আপনার মন ফ্রেশ হতে একেবারে বাধ্য। আর যে কোনো দিন শুরু করার জন্য একটু ফ্রেশ মুড খুবই দরকার।

আরও পড়ুন: Gravitational Force এর নাম পরিবর্তন করে নরেন্দ্র মোদি ওয়েভস করা হবে বললেন তামিলনাড়ুর এক বিজ্ঞানী
চিত্র: সংগ্রহীত

২. আমাদের শরীরের সবচেয়ে প্রাথমিক প্রয়োজন হলো খাবার। তাই, অপরিকল্পিত খাবার-দাবারে শরীর খারাপ হওয়ার সম্ভাবনাও যেমন অনেক বেশি থাকে, তেমনি এর ফলে ডিপ্রেশনও বাড়ে।

এ জন্য সকালে উঠেই এমন কিছু খাওয়া উচিত আমাদের যা শরীরের পক্ষে উপযোগী।

আর সারাদিনের অন্যান্য খাবারগুলোর মধ্যে অন্তত একটা কমফর্ট ফুড রাখা অত্যন্ত প্রয়োজন।

চিত্র: সংগ্রহীত


৩. আপনি বাড়িতে থাকুন বা বাইরে, যেমন পোশাক-আশাকে, যেমন সাজে নিজে’কে দেখতে ভাল লাগে, ঠিক তেমনই সেজে ফেলুন।

আর তা যদি হয় মেকআপ এবং জাঙ্ক জুয়েলারি, তবে তাই করুন। আবার তা যদি হয় ফ্রেশ টি-শার্ট এবং শর্টসে, তবে তাই-ই করুন।

বাসি কাপড়-চোপড় ছেড়ে ফ্রেশ জামা-কাপড় পরা শুধু নিয়ম বা সংস্কার বা আচার-বিচার নয় কিন্তু। এর একটা খুব ভাল দিকও আছে। নিজে’কে যত্ন করার এটা একটি ধাপ।

চিত্র: সংগ্রহীত

আরও পড়ুন: বিখ্যাত ১০ টি ভারতীয় খাবার, যেগুলি মোটেই ভারতীয় নয়। জানুন কি কি….
৪. দিনে একবার ধ্যান করাটা কিন্ত খুব জরুরি। হ্যাঁ, প্রথম প্রথম এতে মনোঃসংযোগ করাটা একটু কঠিন।

তবে, একটু একটু করে সময় বাড়িয়ে নিন। নিতান্তই যদি আপনার ধৈর্য্যে না কুলোয়, তাহলে একটু চুপ করে বসে থাকুন কিছুক্ষণ, বসে বসে ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করুন। 
চিত্র: সংগ্রহীত

৫. স্মার্টফোন থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করুন দিনের মধ্যে কিছু ঘণ্টা, বিশেষ করে রাতে ঘুমো’তে যাওয়ার আগে কিন্তু এটা খুবই জরুরি।

এই সময়টা আপনি বই পড়তে পারেন, না হলে গান শুনুন বা মুভি দেখুন।

আরও পড়ুন: দরকার নেই পেট্রোল, এবার বিয়ারে চলবে গাড়ি! তাড়াতাড়ি জেনে নিন কীভাবে?
চিত্র: সংগ্রহীত


৬. রোজই আমাদের জীবনে কিছু না কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা থাকে বা এই ধরণের ঘটনার সঙ্গে আমারা জড়িয়ে থাকি।

সেটা কিন্তু হতে পারে অন্য সম্পর্কের টানাপড়া, আর্থিক সমস্যা বা জীবিকার টেনশন। আর যখনই এ রকম কোনো কিছু ঘটে, তখন অনুভূতিপ্রবণ মানুষেরা খুবই বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে।

আরও পড়ুন: প্রেমে পড়লেই নাকি ওজন বেড়ে যায়, সম্প্রতি গবেষণা তো এমনই বলছে

মনে রাখবেন, সব সময় সব সমস্যা’র সমাধান হয় না। কিন্তু, আপনি নিজের মন’কে যত্ন না করলে এ রকম পরিস্থিতি থেকে সত্যিই বেরোনো খুবই কঠিন।

এ রকম সময়ে একান্তে আপনি নিজেই নিজের কাউন্সেলিং করুন, গান শুনুন বা হাঁটাহাটি করুন।

চিত্র: সংগ্রহীত

৭. মনে রাখবেন আপনার যত জ্ঞানের পরিধি বাড়বে, আপনার ততই বাড়বে আত্মবিশ্বাস।

আর তাই, নিজে’কে যত্ন নেওয়ার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হলো- বই পড়া, ম্যাগাজিন পড়া, গুগল সার্চে সার্চ করে দৈনিক কিছু না কিছু নতুন কিছু শেখা।

চিত্র: সংগ্রহীত

প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে। ধন্যবাদ।।

বাংলায় ভাইরাল ভাইরাল খবর, লেটেস্ট নিউজ, বিনোদনমূলক পোস্ট ও আন্তর্জাতিক খবর পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ- Bengali Viral News

বিজ্ঞাপন
Jayanta Das:
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন