এটা স্কুল নাকি অন্যকিছু! ক্লাসের মধ্যেই টিকটক ভিডিও বানাতে মত্ত ছাত্রছাত্রীরা, ভাইরাল ভিডিও

বিজ্ঞাপন

ক্লাসরুমের মধ্যেই টিকটক ভিডিও বানাচ্ছে পড়ুয়ারা!  আবার সেই ভিডিও-ও সোশ্যাল মিডিয়া’তে আপলোডও করেছে তারা। তবে, ভিডিওটি ভাইরাল হতেও কিন্তু বেশি সময় লাগেনি। শোরগোল পড়ে যায় আলিপুরদুয়ারে।

ঘটনাটি সলসলাবাড়ি মডেল হাইস্কুলের ঘটনা। যদিও, অভিভাবক এবং প্রাক্তনী’দের বিক্ষোভের মুখে পড়ে অবশেষে অভিযুক্ত ছাত্রছাত্রীদের অভিভাবকদের সাথে বৈঠক করার আশ্বাসও দিয়েছেন প্রধান শিক্ষক।

আরও পড়ুন: এবার ভারতের জন্য ফ্রী ওয়াই-ফাই পরিষেবা গুগলের! বিস্তারিত জেনে নিন:

কয়েক দিন পরেই স্বাধীনতার দিবস। আর তাই, আলিপুরদুয়ারের সলসলাবাড়ি মডেল হাইস্কুলে জোরকদমে চলছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মহড়া। অভিযোগ, স্বাধীনতা দিবসে’র অনুষ্ঠানের ট্রায়ালের ফাঁকেই ক্লাসরুমের মধ্যেই টিকটক ভিডিও বানাচ্ছে একদল ছাত্রছাত্রী। আর ভিডিটিও সোশ্যাল মিডিয়া’তে ভাইরাল হতেই ব্যাপক ক্ষোভে ফেটে পড়েছে অভিভাবক এবং ওই স্কুলেরই প্রাক্তনীরা।

তাদের দাবি, টিকটকের ওই ভিডিওটিতে খোদ স্কুল পরিচালন সমিতি’র সভাপতি’র মেয়েও রয়েছে। তাই, সব জেনেও ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে কোনো রকম ব্যবস্থাই নিচ্ছে না স্কুল-কর্তৃপক্ষ। অভিযুক্ত ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি’তে গত বুধবার ওই স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সঙ্গেও দেখা করেন প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের একাংশ।

আরও পড়ুন: করণ জোহরের ঘরোয়া পার্টি’তে ‘নেশাগ্রস্থ’ দীপিকাসহ বলিউড তারকারা, ভিডিও ফাঁস

এ দিকে, স্কুলের প্রধান শিক্ষক সজলকান্তি মিত্র জানিয়েছেন যে, “স্কুলে এখন ইউনিট টেস্ট চলছে। ৭ দিন পরে পরীক্ষা শেষ হলেই অভিভাবকদের সঙ্গে বৈঠক করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” আর স্কুলের পরিচালন সমিতির সভাপতি বিমলচন্দ্র রায় জানিয়েছেন, “স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানের জন্য নাচ শেখাচ্ছিলেন দিদিমণিরা। তাঁদের অনুপস্থিতিতেই এমন ভিডিও তৈরি করেছে ছাত্রছাত্রীরা। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।”

ভিডিওটিতে দেখুন:

কিন্তু, স্কুলে তো ছাত্রছাত্রীদের মোবাইল ফোন নিষিদ্ধ। তা হলে, তারা স্কুলের ক্লাসের মধ্যে বসে টিকটকে ভিডিও বানালো কি করে? আর এর কোনো সদুত্তরও দিতে পারেনি স্কুল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: উড়ন্ত বিমানের মধ্যেই প্রেমিকের মাথায় আস্ত ল্যাপটপ ভাঙলো প্রেমিকা!

প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনার বন্ধুদের সাথে। ধন্যবাদ।।

বিজ্ঞাপন
Jayanta Das:
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন