ফেসবুকের আসল প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ নন, তিনি একজন ভারতীয়

যদি কেউ আপনাকে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতার নাম জিজ্ঞাসা করে, তাহলে আপনি হুমকি দিয়ে বলবেন মার্ক জুকারবার্গ না। কিন্তু 99% ফেসবুক ব্যবহারকারীরা মার্ক জুকারবার্গ এর নাম বলবেন। কিন্তু দেখা যায় যে মানুষ এই বাস্তবতা সম্পর্কে সচেতন নয়, যে ফেসবুকের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা একজন ভারতীয়। তার নাম দিব্য নরেন্দ্র।

৩৬ বছর বয়সী দিব্য নরেন্দ্রের জন্মদিন ১৯৮২ সালের ১৮ ই মার্চ জন্মগ্রহণের আগেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসেন। তাই, নিউইয়র্কে জন্মগ্রহণ করেন দিব্য। দিব্য এর বাবা-মা চেয়েছিলেন তাদের মত একজন ডাক্তার হোক, কিন্তু দিব্য একটি উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখে। তিনি শুরু থেকে ভিন্ন এবং অসাধারণ কিছু করতে চেয়েছিলেন এবং তার কঠোর পরিশ্রমের কারণে, তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করেন এবং ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা হন। কিন্তু তার নামের দ্বারা তার আবিষ্কার একজন কু-কৌশলে ব্যবহার করে সেটা চুরি করে নেয়। তিনি আর কেউ নন, তিনি মার্ক জুকারবার্গ।

মার্ক জুকারবার্গ ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা হিসাবে বিখ্যাত হয়ে উঠেছে এই কারণে। কিন্তু বাস্তবতা হল ফেসবুক “হার্ভার্ড সংযোগ সোশ্যাল সাইট” এর আবিষ্কারের সময় জন্মগ্রহণ করেছিল। দিব্য সেখানে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করছেন। মার্ক জুকারবার্গ শুধুমাত্র এই প্রজেক্টে উপদেষ্টা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত ছিল কিন্তু জুকারবার্গ এই প্রকল্পটি হ্যাক করে নেয়। এর পরে, তিনি নিজের নামে নিজের ডোমেইন নিবন্ধন করেন।

সেজন্য মার্ক ও দিব্যের মধ্যে প্রচণ্ড ঝামেলা তৈরি হয়েছিল। শীঘ্রই দিব্য ২00৪ সালে আমেরিকান একটি আদালতে মার্ক জুকারবার্গের বিরুদ্ধে আবেদন করেন। আদালতে পরিষ্কার প্রমানিত হয় যে ফেসবুকের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা দিব্য নরেন্দ্র এবং মার্ক জুকারবার্গ কে এই জালিয়াতি করার জন্য জরিমানা করা হয় প্রায় 65 মিলিয়ন ডলার। কিন্তু দিব্য এই পরিমাণে খুশি হয়নি। তিনি বলেন, সেই সময় বাজারে ফেসবুকের শেয়ারের দাম অনুযায়ী তিনি ন্যায্য পরিমাণ পাননি।

তবে, এই ঘটনার পর, এটি স্পষ্ট হয়ে যায় যে আসল ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা জাকারবার্গ ছিলেন না , তিনি দিব্য নরেন্দ্র। তাই এখন থেকে, ফেসবুকের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা “দিব্য নরেন্দ্র” নামটি নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *