ঠাকুর ঘরে যে ৫ টি ভুল করলে কখনোই দেব দেবীর কৃপা পাবেন না। সাবধান হয়ে যান আজই…

বিজ্ঞাপন

কমবেশি সকলেই ঠাকুর দেবতা বিশ্বাস করেন। আজকাল অনেককেই মুখে বলতে শোনা যায় যে সে ঠাকুর মানে না, ওসব এখনকার যুগে কেউ বিশ্বাস করেনা। কিন্তু মানুষের জীবনে এমন কিছু কিছু পরিস্থিতি আসে যে তখন একমাত্র ভরসার জায়গা হয়ে দাঁড়ায় ভগবান। সব বাড়িতেই ঠাকুর প্রতিষ্ঠা করা থাকে। কেউ আলাদা করে ঠাকুর ঘরে ঠাকুর রাখেন।

আবার অনেকেই নিজেদের বসবাস করার ঘরেই এক জায়গায় ঠাকুর রেখে পূজো করেন। কিন্তু সবাই সব নিয়ম জানেননা, তাই কোন ত্রুটি থেকে গেলে হয়ে যেতে পারে মহা বিপদ। আপনার বাড়ির উপর পড়তে পারে মা লক্ষ্মীর অভিশাপ। আসুন তাহলে জেনে নিন ঠাকুর ঘরের সঠিক নিয়ম-

১ । সিংহাসনে লক্ষ্মীকে সবসময় লাল কাপড়ের উপর বসিয়ে রাখুন। সেটি যেমন মূর্তিই হোক। পিতলের হোক বা মাটির মূর্তি, এই নিয়মটি মেনে চলুন সব সময়। ফলে আপনার এবং আপনার পরিবারের উপর সবসময় মা লক্ষ্মীর আশীর্বাদ থাকব।

২ । লক্ষ্মী গনেশ পাশাপাশি রাখলে সব সময় লক্ষ্মীকে গনেশের বাম পাশে রাখার চেষ্টা করবেন। দিক সর্বদা বাস্তুর উপর প্রচন্ড প্রভাব ফেলে। তাই এই ব্যাপারটি ভুল হলে চরম বিপদ হতে পারে।

৩ । হিন্দু শাস্ত্র অনুযায়ী তুলসী পাতা খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই পাতা দিয়ে ভগবানের আরাধনা করলে ঠাকুর ঘর শুদ্ধ হয়। এর ফলে আপনার বাড়িতে শুভ শক্তির আগমন ঘটে। এই পাতার প্রভাবে অশুভ শক্তি বাড়িতে প্রবেশ করতে পারেনা। আপনার বাড়িতে কোন সমস্যা থাকলে তা দূরে সরে যায়।

৪ । প্রদীপ জ্বালালে আপনার বাড়িতে শুভ শক্তির প্রভাব বাড়ে। তাই প্রতিদিন সকালে উঠে ঠাকুরের কাছে প্রদীপ জ্বালান। ঠাকুর ঘর সব সময় আলোকিত রাখা দরকার। তাহলে আপনার বাড়িকে অনেক পসিটিভ শক্তি ঘিরে রাখবে।

৫ । আপনি বাড়িতে লক্ষ্মী গনেশের মূর্তি যদি রাখেন তাহলে একটা জিনিস অবশ্যই মাথায় রাখবেন যে গনেশের শুঁড় যেন কখনোই লক্ষ্মীর দিকে না থাকে। এক্ষেত্রে হতে পারে চরম অমঙ্গল। তাই সব সময় চেষ্টা করবেন এই কথাটি মাথায় রাখার।

যদি এই নিয়মগুলি ঠিক মতো মানতে পারেন তাহলে আপনার জীবন হয়ে উঠবে সুখ সমৃদ্ধিতে পরিপূর্ন। ঠাকুর ঘরে অবশ্যই প্রদীপ জ্বালান, আর আপনার ঠাকুর ঘরে যে ঠাকুরের আসন আছে সেই ঠাকুরের আসনের দুই কোণে দুটি প্রদীপ জ্বালাবেন।

বিজ্ঞাপন
Sanjib:
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন