বাংলার এই বেকার ছেলে ইউটিউবে বেকারদের উপদেশ দিয়েই মাসে হাজার হাজার টাকা রোজগার করছে! জেনে নিন:

বিজ্ঞাপন

গ্রামের বাড়িতে বসে একটি স্মার্ট ফোন, ল্যাপটপ আর অনেকটা স্বপ্ন নিয়ে নিয়মিত শিক্ষামূলক ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করতে শুরু করে হাবড়ার বাসিন্দা বছর কুড়ি’র আলামিন রহমান। সরকারি চাকরি করার ইচ্ছে তাঁর নেই। কিন্তু, তার ভিডিও কাজে আসে অনেক সরকারি চাকুরিপ্রার্থী বাংলার বেকার যুবক-যুবতীদের। প্রায় দেড় বছর ধরে আলামিনের এই চেষ্টায় এখন তার ইউটিউব চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ১ লাখ ১৪ হাজার। সম্প্রতি তাঁকে ‘সিলভার প্লে ব্যাটন’ দিয়েও সম্মান জানায় ইউটিউব কর্তৃপক্ষ। আর ইউটিউবে এই ভিডিও আপলোডের সূত্রেই এখন সে মাসে ২০-২৫ হাজার টাকা রোজগার করছে।

আলামিন জানিয়েছে, ক্লাস সিক্স এ পড়ার সময় থেকেই ল্যাপটপ ব্যবহার করতো সে। উচ্চমাধ্যমিকে পড়ার সময় স্কুলের এক শিক্ষক LED লাইট-সহ নানা বিষয় নিয়ে ভিডিও দেখিয়েছিলেন ইউটিউবে। যা তাঁর মনে গেঁথে গিয়েছিল। তখন থেকেই তাঁর মাথায় ছিল, অন্য রকম কিছু একটা করার।

আরও পড়ুন: গোপন প্রযুক্তি! এক অভিনব কায়দায় মেয়েদের অশ্লীল ছবি তুলতে গিয়ে বিপাকে এই যুবক!

এদিকে গ্রাম বাংলার ছেলে হওয়ায় সে নিজের অভিজ্ঞতায় দেখে যে, আর্থিক অনটনের কারণে বাংলার বহু ছেলেমেয়েই সরকারী চাকরির পরীক্ষার জন্য ঠিকমতো কোচিং নিতে পারে না। সরকারী চাকরির পরীক্ষায় কিভাবে সফল পাওয়া যায়, তার সঠিক গাইডলাইনও থাকে না অনেকেরই কাছে।

এই সব বেকার যুবক-যুবতীদের কিভাবে সাহায্য করা যায়, তা নিয়ে ভাবতে ভাবতেই পরিকল্পনাটি আলামিনের মাথায় এসেছিল। যেমন ভাবা, তেমনি কাজ! গত বছরই ফেব্রুয়ারি’তে ইউটিউবে আলামিন তাঁর নিজস্ব একটি এডুকেশন চ্যানেল খুলে ফেলে। নাম দিয়েছেন, ‘The Way Of Solution’ আর এই চ্যানেলের মাধ্যমেই এখন সে বাংলার বেকার যুবক-যুবতীদের সরকারি পরীক্ষার উপদেশ দিচ্ছেন নিয়মিত।

চিত্র: সংগ্রহিত

আলামিন জানিয়েছে যে, প্রতিদিনই সাধারণ জ্ঞান, সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া ঘটনা, গণিত-সহ নানা বিষয়েই আপলোড করা হয় তাঁর এই চ্যানেলে। তৈরি করেছেন ওয়েবসাইটও। সেখানে PDF ফাইলও দেওয়া হচ্ছে। আবার কেউ কিছু বুঝতে না পারলে, তাঁরা ‘কমেন্ট’ করে জানতে চাইলে, সেই মতো সমস্যার সমাধানও দিচ্ছেন আলামিন। তবে এই কাজের জন্য অবশ্য রাতদিন পরিশ্রম করতে হচ্ছে আলামিন’কে।

আরও পড়ুন: এবার চালক ছাড়াই মেট্রো চলবে কলকাতাতে, আসছে নয়া প্রযুক্তি, বাড়বে গতিও!

সাধারণত, পিএসসি, রাজ্য পুলিশ, আরপিএফ ও রেলওয়ের চাকরির পরীক্ষার শিক্ষাদান দেওয়া হয় আলামিনের এই ইউটিউব চ্যানেলে। আলামিন তাঁর এই চ্যানেলটিকে আরও বড় পরিসরে এগিয়ে নিতে চান। শিক্ষা-সংক্রান্ত একটি অ্যাপও চালু করতে চলছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। তখন গুগল প্লে-স্টোরের মাধ্যমেই সরাসরি তা মোবাইলে ডাউনলোডও করা যাবে। আলামিনের পরবর্তী লক্ষ্য, তাঁর এই চ্যানেলের সাবক্রাইবারের সংখ্যা ১০ লাখে নিয়ে যাওয়ার। যার মাধম্যে ইউটিউব কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ‘গোল্ডেন প্লে ব্যাটন’ পাবে, এই স্বপ্ন আলামিনের।

আলামিন জানিয়েছে, “ইউটিউব চ্যানেল দ্বারা মানুষকে সাহায্য করতে পারছি আর তাদের ভালবাসা পাচ্ছি- এর থেকে বড় পাওনা আমার জীবনে আর কি হতে পারে! যত দিন পারবো, এই দায়িত্ব আমি পালন করে যাবো।”

প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন আপনারদের বন্ধুদের সাথে। ধন্যবাদ।।
সূত্র

বিজ্ঞাপন
Jayanta Das:
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন